ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিতে প্রস্তুত স্পেনসহ ইউরোপের ৪ দেশ

Comments · 180 Views

ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিতে ‘প্রস্তুত’ স্পেনসহ ইউরোপের ৪ দেশ

শুক্রবার (২২ মার্চ) ব্রাসেলসে ইউরোপীয় কাউন্সিলের বৈঠকের ফাঁকে এক বৈঠকে চার দেশ এ বিষয়ে একমত হয় বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স।  

এ বিষয়ে স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ বলেন, কাউন্সিলের সমাবেশের ফাঁকে আইরিশ, মাল্টিজ এবং স্লোভেনিয়ান নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর এই চুক্তি হয়েছে।
 
তিন দেশের সঙ্গে মিলে ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার প্রথম পদক্ষেপ বলেও বিষয়টিকে উল্লেখ করেন তিনি।
 
বৈঠকের পর এক যৌথ বিবৃতিতে আয়ারল্যান্ড বলেছে, দীর্ঘস্থায়ী শান্তি ও স্থিতিশীলতা অর্জনের একমাত্র উপায় হল একটি দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধান বাস্তবায়ন করা।  
 
নভেম্বরে স্পেনে এক বৈঠকে একমত হয়ে আরব রাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন বলেছিল, ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাত বন্ধ করার উপায় হলো একটি দ্বি-রাষ্ট্র সমাধান।
 
এদিকে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় যুদ্ধবিরতির আহ্বানে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে উত্থাপিত একটি প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছে রাশিয়া ও চীন।
 
শুক্রবার (২২ মার্চ) সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদে ১১টি দেশ পক্ষে ভোট দেয়। স্থায়ী সদস্য রাশিয়া ও চীন এবং রোটেটিং সদস্য আলজেরিয়া এতে বিরোধিতা করে। ভোট দেয়া থেকে বিরত থাকে গায়ানা।
 
নিরাপত্তা পরিষদের নীতি অনুযায়ী, একজন স্থায়ী সদস্য ভেটো দিলেই প্রস্তাব বাতিল হয়ে যায়।
 
জাতিসংঘে নিযুক্ত আলজেরিয়ার দূত আমার বেন্দজামা বলেন, প্রস্তাবের পাঠ্য (টেক্সট) অপূর্ণ। তা ফিলিস্তিনিদের সহ্য করা অপরিসীম যন্ত্রণা তুলে ধরতেও ব্যর্থ।


তিনি নিরাপত্তা পরিষদকে বলেন, যারা বিশ্বাস করে, ইসরাইলি দখলদার শক্তি আন্তর্জাতিক আইনি বাধ্যবাধকতা বজায় রাখবে তারা ভুল। তাদের এই কল্পকাহিনী বাদ দিতে হবে।
 
গত ৭ অক্টোবর ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস ইসরাইলে হামলা চালিয়ে ১ হাজার ২০০ জনকে হত্যা ও দুই শতাধিক ব্যক্তিকে জিম্মি করে। এ ঘটনার পর গাজায় সামরিক অভিযান শুরু করে ইসরাইল। তাদের হামলায় এখন পর্যন্ত প্রায় ৩১ হাজারের বেশি লোক নিহত হয়েছেন। আর আহত হয়েছে ৭২ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি। 
Read more
Comments
abulhasan Tushar 5 w

ইনশাআল্লাহ

 
 
Tajkia Hasan 5 w

আলহামদুলিল্লাহ